হাতের লেখা যেন কম্পিউটার টাইপিং! বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর হাতের লেখার অধিকারী এই যুবতী

0
126

ভালো ছাত্র-ছাত্রীর হাতের লেখা ভালো হয়।

-এ ধরনের কথা আমরা অনেক শুনেছি। এগুলো আমাদের জীবনের একটি অংশই হয়ে গেছে। এখানে আমরা বলতে যাদের হাতের লেখা খারাপ তাদের বোঝানো হয়েছে।হাতের লেখা ভালো হলে যিনি পড়ছেন তিনিও বেশ প্রশান্তি পান।

আমরা এটাও জানি, অনেকের হাতের লেখা এতই খারাপ, অন্য কেউ পারা তো দূরের কথা লেখক পরে নিজেও আর পড়তে পারেন না।কিন্তু পৃথিবীতে এমন একজন আছে যার হাতের লেখা এমএস ওয়ার্ডের চেয়েও বেশি সুন্দর।

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে যে কোনো সংবাদ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়ে। এভাবেই আমরা তার নাম জানতে পেরেছি।

প্রকৃতি মাল্লা ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী এবং হাতের লেখার কারণে সে এখন বিশ্ববিখ্যাত। কিছুদিন আগে নেপালের একজন তার হাতের লেখার ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেন এবং কিছুদিনের মধ্যে সারা বিশ্বে এটি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়।সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে যারা যুক্ত আছেন তারা জানবেন যে, একটি হাতের লেখা যা অনেকদিন আগেই সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছিল এবং প্রচুর বাহবা পেয়েছিল। হাতের লেখা দেখলে মনে হয় যেন সেটি কম্পিউটারে টাইপ করা। কিন্তু না সেটি নিজে হাতে লেখা! আর এই অত্যাশ্চর্য সুন্দর হাতের লেখা লিখেছেন মাত্র অষ্টম শ্রেণীতে পড়া এক ছাত্রী, যার নাম প্রকৃতি মাল্লা।

 

সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে যারা যুক্ত আছেন তারা জানবেন যে, একটি হাতের লেখা যা অনেকদিন আগেই সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছিল এবং প্রচুর বাহবা পেয়েছিল। হাতের লেখা দেখলে মনে হয় যেন সেটি কম্পিউটারে টাইপ করা। কিন্তু না সেটি নিজে হাতে লেখা! আর এই অত্যাশ্চর্য সুন্দর হাতের লেখা লিখেছেন মাত্র অষ্টম শ্রেণীতে পড়া এক ছাত্রী, যার নাম প্রকৃতি মাল্লা।

এই অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী প্রকৃতি মাল্লা তার এই হাতের লেখার জন্য সারা বিশ্বে পরিচিত হয়ে ওঠেন। শুধু তাই নয় এই বালিকা তার সুন্দর হাতের লেখার জন্য একটি খেতাব’ও পেয়েছেন। এবং নেপালের সশস্ত্র বাহিনী থেকেও তাকে পুরস্কৃত করা হয়েছে।

এই সুন্দর ছোট্ট হস্ত লেখিকা শিল্পীর বাড়ি নেপালে। ‘সৈনিক আওয়াসিয়া’ মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রী। কয়েক মাস আগে নেপালের‌ই এক ভদ্রলোকের চোখে পড়ে তার এই হাতের লেখা এবং তিনি তার সেই হাতের লেখায় মুগ্ধ হয়ে, সেই লেখাটির ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। আর তারপরেই কিছুদিনের মধ্যেই এই বালিকার লেখা সবার নজরে আসে এবং শুরু হয় তার হাতের লেখা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়। কি কারণে তার এই হাতের লেখা নিয়ে এতো তোলপাড় আসুন ছোট্ট করে জেনে নেই-প্রথমেই বলেছি তার হাতের লেখা দেখলে মনে হয় যেন কম্পিউটারে টাইপ করা, আবার কখনো কখনো তার হাতের লেখা এত বেশি সুন্দর হয় যা কম্পিউটারের এমএস ওয়ার্ড এর চেয়েও বেশি সুন্দর দেখায়। তার লেখা বিশেষজ্ঞরা পর্যবেক্ষণ করে বলেছেন, তার প্রত্যেকটি লেখার মাঝখানের ফাঁকা জায়গা গুলো প্রত্যেকটি সমান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here