অনেক বাঁধা বিপত্তির পর দিতিপ্রিয়া উপস্থিতে মোদক পরিবারে উদ্বোধন হলো মিষ্টির হাব! মিঠাই ধারাবাহিকে খুশির বন্যা

0
4

আমরা এক কথায় বিনোদন বলতে বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াকে বুঝি। বর্তমান এই আধুনিক যুগের শিখরে দাড়িয়ে সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের কাছে বিনোদনের এক আলাদাই মানে হয়ে দাড়িয়েছে। শুধু বিনোদন না মানুষজন তার প্রতিভা এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সকলের সামনে তুলে ধরে রাতারাতি স্টার হতে পারে। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই আমরা রানু মন্ডল, বিপাশা দাস ও চাঁদমনি হেমব্রমের মতো সঙ্গীত শিল্পীদের আমাদের মাঝে পেয়েছি।

এছাড়া রানু মন্ডল এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জনপ্রিয় হবার পর তার বর্তমানে একটি বায়োপিকও তৈরি হচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন প্রাকৃতিক দূর্যোগ যেমন – বন্যা, ভারী বৃষ্টিপাত এই সকল আমরা এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই নিমিষের মধ্যে জেনে যেতে পারি। এছাড়া বিভিন্ন জনপ্রিয় তারকাদের দৈনন্দিন জীবযাপনের সুখ দুঃখের মুহূর্তও আমরা এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে দেখতে পারি।

অপরদিকে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হয়েছে খুবই। এছাড়া এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বহু নতুন মানুষজনের সাথে বন্ধুত্ব করা যায়। নতুন নতুন মানুষের সাথে আলাপ হয় এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই। এছাড়া নেটিজেনরা তাদের সুখ দুঃখের মুহূর্তগুলিও এই সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেন। এছাড়াও সুস্বাদু খাবারের বিভিন্ন রেসিপির ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায় এই সোশ্যাল মিডিয়ায়,

যা দেখে আপনি নিজেই সুস্বাদু খাবার রান্না করে খেতে পারেন। সত্যি বলতে এই সোশ্যাল মিডিয়ার অবদান আমাদের জীবনে অপরিসীম। এক কথায় বলতে গেলে এই সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের কাছে একটি সম্পূর্ণ বিনোদনের প্যাকেজ। চলুন তাহলে আজকের আলোচনা শুরু করা যাক। আজ আমরা কথা বলবো বর্তমানের সব থেকে জনপ্রিয় ধারাবাহিক “মিঠাই” কে নিয়ে।

শেষ কয়েক সপ্তাহ ধরে মিঠাই ধারাবাহিকে চলছে টানটান উত্তেজনা পর্ব। মোদক পরিবারের ব্যাবসার ক্ষতি করতে এবারে উপস্থিত হয়েছে আগারওয়ালের ছোট ছেলে ওমি আগারওয়াল। মোদক দের নতুন মিষ্টির হাব খুলতে দিতে চায় না সে। তাই অনেক রকম ষড়যন্ত্র করে মিঠাই এবং সিদ্ধার্থ সহ তাদের পরিবারের সমস্ত ময়রা দের আটক করে সে। কিন্তু অবশেষে সমস্ত বাধা বিপত্তি পেরিয়ে সিদ্ধার্থ এবং মিঠাই সফল হয় মিষ্টির হাব ওপেন করতে।

মিঠাইয়ের গোপাল হেলপ করেছে বলেই তারা এত বড় বিপদ কাটিয়ে উঠতে পেরেছে এই বিশ্বাস মোদক পরিবারের। অন্যদিকে মিষ্টির হাব ওপেনিং জমজমাট। বিশেষ অতিথি হিসেবে দেখা দিয়েছিল রানী রাসমণির দিতিপ্রিয়া রায়। ঐদিনের ওই বিশেষ পর্ব হয়ে উঠেছিল জমজমাট। সকলের মুখেই ঐদিন জয়ের হাসি ফুটে উঠেছিল। মিঠাইয়ের এই জয় দেখে খুশি হয়েছিলেন দর্শকেরাও।

ধারাবাহিকের এই নিত্যনতুন টুইস্টই দর্শকে উৎসাহী করে তোলে প্রতিদিন পর্ব গুলি দেখার জন্য। এখন তো আবার সিদ্ধার্থ ও মিঠাইয়ের প্রেম কাহিনী ও ধীরে ধীরে এগোচ্ছে। উচ্ছেবাবু ধীরে ধীরে ভালোবেসে ফেলেছে মিঠাই রাণীকে। যা নিয়ে প্রচন্ড উৎসাহী মিঠাই ভক্তরা। সকলেই অপেক্ষা করে আছে মিঠাই এবং সিদ্ধার্থের একটি রোমান্টিক মুহুর্ত দেখার জন্য। বলাইবাহুল্য মিঠাই ধারাবাহিকের প্রত্যেকটি পর্বে এখন দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের টুইস্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here